babu_archiveOLDIES RUMBLE The Lector 

খড়কে দিয়ে জমিদারি

মোসাহেবি করাও একটি গুণ। তাতেও পেশাদারি দক্ষতা থাকতে হয়। আজকের কর্পোরেট ম্যানেজমেন্টে এটি অতিআবশ্যিক একটি কোয়ালিটি। বাঙালির ইতিহাসে মোসাহেবির অনেক উল্লেখ আছে। দাঁত খোঁচার খড়কে দিয়ে জমিদারি উপহার পাওয়ার নজিরও রয়েছে।

নদিয়ার রাজা কৃষ্ণচন্দ্রের রাজসভায় ছিলেন লোচন রায়। কবিগানের গীত রচনাতেও নাম করেছিলেন তিনি। লোচন রায় ছিলেন ব্রাহ্মণ। আর রাজা কৃষ্ণচন্দ্র ব্রাহ্মণের হাত থেকেই দাঁত খোঁচানোর খড়কে নিতেন। খড়কে সেবার জন্য তাঁর নাম হয় লোচন খড়কী। ক্রমেই উমেদারবৃত্তিতে রাজার একটু বেশি পছন্দের হয়ে ওঠেন খড়কী মশায়। লোচনের বিয়েতে পরগনা মামজোয়ানী উপহার দেন রাজা কৃষ্ণচন্দ্র। অবশ্য সেই সময় এটি লাভজনক মহাল ছিল না। লোচন খড়কীরই বংশধর উমেশচন্দ্র রায়। ধড়িবাজিতে উমেশবাবুর কোনও জুড়ি ছিল না।

Related posts

Leave a Reply

error: Content is protected !!
%d bloggers like this: